প্রচারণা নিয়ে মন খারাপ নায়িকার

প্রচারণা নিয়ে মন খারাপ নায়িকার

এফএনএস বিনোদন: চলচ্চিত্রে আইটেম গানে পারফর্ম করে রুপালি পর্দায় আগমন ঘটে রুমাই নোভিয়ার। ঢালিউডে নবাগতা হিসেবে আলোচিত ছিলেন ‘ক্রাইম রোড’খ্যাত এই নায়িকা।

দীর্ঘদিন পর তরুণ নির্মাতা রুবেল আনুশের ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’ সিনেমায় তাকে আবার পর্দায় দেখা যাবে। সিনেমাটি নির্মাণের ৭ বছর পর মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

যদিও এই সিনেমার শুরু থেকে কখনো রুমাই নোভিয়ার নাম আলোচনায় আসেনি। নির্মাতার প্রচারণার কৌশল হিসেবেই আড়ালে ছিল তার নাম- জানান আনুশ।

আগামী ২৫ নভেম্বর ‘সিনেমা কটেজ’ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলে সিনেমাটি মুক্তি পাবে। সাহসী গল্পের এই চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড আটকে দেয়। যে কারণে অনলাইনে মুক্তি দেয়া হচ্ছে।

তিনটি প্রেমের গল্পের সম্মিলনে নির্মিত চলচ্চিত্রটির প্রচারণায় দেখা গেছে শুধু জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ী সিমলাকে। বিষয়টি নিয়ে আক্ষেপ করে রুমাই নোভিয়া বলেন, ‘নির্মাতা রুবেল আনুশ আমার খুব ভালো বন্ধু। চলচ্চিত্রটিতে সিমলার মতো আমারও বড় উপস্থিতি আছে। তবু প্রচার প্রচারণায় আমাকে কোথাও খুঁজে পাচ্ছি না।

তাই মন কিছুটা খারাপ। আমি হয়তো অন্য কারো তারকাখ্যাতির কাছে হেরে যাচ্ছি। তবে সিনেমাটি দেখার পর দর্শক বুঝতে পারবেন এতে আমার চরিত্রের গুরুত্ব এবং আমার অভিনয় দক্ষতার বিষয়টি।’ এ প্রসঙ্গে নির্মাতা রুবেল আনুশ বলেন, ‘সিনেমাটিত সিমলা বা রুমাই নোভিয়া কারও চরিত্রের গুরুত্ব কারও চাইতে কম নয়।

বরং চলচ্চিত্রটির দু’টি গানে রুমাই নোভিয়ার উপস্থিতি রয়েছে, যা অন্যান্যের নেই। তবে মার্কেটিং পলিসির জায়গা থেকেই আমরা এই ধরনের প্রচারণা পদ্ধতি বেছে নিয়েছি।

কথা দিচ্ছি, দুই-একদিনের মধ্যেই নতুন পোস্টার আমরা প্রকাশ করবো, যেখানে রুমাইয়ের উপস্থিতি প্রাধান্য পাবে।’ রুমাই নোভিয়া বর্তমানে পেশাগত কারণে ভারতের সিকিমের রাজধানী গ্যাংটকে বসবাস করছেন।

করোনা মহামারির কারণে দুই দেশে যাতায়াত বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সেখানে আটকা পড়েন তিনি। তবে, খুব শীঘ্রই দেশে ফিরে অভিনয়ে মন দিতে চান এই নায়িকা।